আজ ২৬শে আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১০ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

মাধবপুরে ১৮ বছর যাবত মৎস্য কার্যালয়ে ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা দিয়েই চলছে কার্যক্রম

 স্টাফ রিপোর্টার:হবিগঞ্জের  মাধবপুর উপজেলা মৎস্য কার্যালয়ে ১৮ বছর যাবত ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা দিয়েই চলছে কার্যক্রম । এই কর্মকর্তা পার্শ্ববর্তী ব্রাহ্মণ বাড়ীয়া জেলার বিজয় নগর উপজেলার ইসলামপুর গ্রামের বাসীন্দা হওয়ার সুবাদে দীর্ঘদিন একই কর্মস্থলে অবস্থানের ফলে নিজ কার্যালয় ও এলাকায় আধিপত্য বিস্তার করেছেন। যার ফলে  তার সঙ্গে যাদের সুসম্পর্ক আছে তারাই সুবিধা পান বেশী ।

মৎস্য অফিস সূত্রে জানা যায়, জয়পুর মৎস্যজীবী সমিতির সভাপতি আব্দুল শুক্কুর মুন্সী। তিনি  উপজেলার শাহজালালপুর উত্তর জামে মসজিদের ইমাম।

গত ২২-২৩ অর্থবছরে সরকারী পুকুর লিজ নিয়েছেন জয়পুর জামে মসজিদের পাশে।২০২১-২২ অর্থবছরে উপজেলার মনতলাতে সরকারিভাবে আরও একটি পুকুর লিজ নেন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে মাধবপুর উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) আবু আসাদ ফরিদুল হক জানান, পূর্বে আব্দুল শুক্কুর মুন্সী জেলে সমিতির সভাপতি ছিল।জানতে পারি  তিনি বর্তমানে একটি মসজিদের ইমামতি করছেন।

মৎস্যজীবী সমিতির সভাপতি বর্তমানে একজন ঈমাম। আপনি যেনেও তার কাছে সরকারি পুকুর লিজ দিয়েছেন- এটা কি আইনসম্মত?। এ বিষয়ে কোনো জবাব দেননি আবু আসাদ ফরিদুল হক। এ বিষয়ে আব্দুল শুক্কুর মুন্সির সঙ্গে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি পুকুর লিজের কথা স্বীকার করে বলেন, ‘পুকুরের কাছে আমার বাড়ি এ কারণে তিনি পুকুরটি লিজ নিয়েছেন। মনতলার পুকুরটি আপনার বাড়ি থেকে অনেক দূরে তাহলে সেটা নিলেন কীভাবে। মৎস্যজীবী সমিতি না হলে লিজ নেয়া যায় না; আপনি একজন ঈমাম হয়ে কীভাবে নিলেন দুটি সরকারি পুকুরের লিজ। তবে তিনি এ বিষয়ে কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি।

জয়পুর মসজিদ কমিটির সম্পাদক সাইফুর রহমান তুহিন বলেন, ‘বর্তমানে আব্দুল শুক্কুর মুন্সি আমাদের জয়পুর মসজিদের মক্তবে পড়ান এবং মক্তবে জমিজমাও তার দখলে।’

 মৎস্য কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, আবু আসাদ ফরিদুল হক মাধবপুর মৎস্য কার্যালয়ে ১৮ বছর ধরে কর্মরত।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এ ক্যাটাগরীর আরো সংবাদ